October 7, 2022

রোনালদো ‘শত্রু’ হতে চলেছেন ম্যানইউ’র!

গেল বছর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো অনেক আশার ফানুস উড়িয়ে ১২ বছর পর ফিরেছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। বছর না ঘুরতেই সেই রোনালদো দল ছাড়তে চাইছেন, জানা গিয়েছিল আগেই। এবার শোনা যাচ্ছে, পর্তুগিজ এই স্ট্রাইকারকে দলে ভেড়ানোর কথা ভাবছে ইউনাইটেডেরই প্রিমিয়ার লিগ প্রতিদ্বন্দ্বী চেলসি। সেটা হয়ে গেলে আগামী মৌসুমে ইউনাইটেডের সরাসরি শত্রুই হতে চলেছেন রোনালদো।

Thank you for reading this p

ost, don't forget to subscribe!

 

 

 

দলের গ্রীষ্মকালীন দলবদল কার্যক্রমে ‘উচ্চাকাঙ্ক্ষার অভাব’ দেখে দল ছাড়তে চাইছেন রোনালদো। ইতোমধ্যেই তার এজেন্ট হোর্হে মেন্দেস তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য চেলসিকে প্রস্তাব দিয়েছেন। ৩৭ বছর বয়সী এই তারকাকে দলে ভেড়ানোর জন্য চেলসির মালিক টড বয়েলি গেল মাসেই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। ফলে তিনি এখন আলোচনা এগিয়ে নিচ্ছেন রোনালদোর এজেন্টের সঙ্গে।

তবে রোনালদোকে চেলসি শেষমেশ দলে ভেড়াবে কি না, সেজন্যে দলটিকে সবুজ সংকেত পেতে হবে কোচ থমাস টুখেলের কাছ থেকে। চেলসির নতুন মালিকপক্ষ কোচ টুখেলের ওপর অনাকাঙ্ক্ষিত খেলোয়াড়ের বোঝা চাপিয়ে দিতে চান না। আর টুখেল রোনালদোকে দলে চান কি না, সে নিয়েও আছে সংশয়।

চেলসি কোচ মূলত তার আক্রমণভাগকে ফ্লুইড ও ভার্সেটাইল বানাতে চাইছেন। যে কারণে রোমেলু লুকাকুকে ছেড়ে দিয়েছেন, যিনি গেল মৌসুমে চেলসিতে যোগ দিয়ে দলে মানিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। তার ব্যর্থতার কারণ হিসেবে বলা হয়েছিল লুকাকুর প্রেস করতে অনীহা আর গতির অভাবকে। রোনালদোকে দলে ভেড়ালেও একই সমস্যার মুখে পড়তে হতে পারে চেলসিকে।

গেল মৌসুমে সব মিলিয়ে ৩৮ ম্যাচ খেলে রোনালদো ২৪ গোল করেছেন, তবে ইউনাইটেড দলে তার ‘নেতিবাচক’ প্রভাব নিয়ে আলোচনা হয় বিস্তর। সেই রোনালদোকে টুখেল দলে ভেড়াবেন, সে বিষয়টাও আপাতদৃষ্টিতে অসম্ভবই ঠেকছে।

তবে রোনালদোকে দলে ভেড়ানোর একটা কারণ হতে পারে ব্যবসায়িক। পর্তুগিজ এই তারকা দলে আসা মানেই ক্লাবের কোষাগার ফুলে-ফেঁপে ওঠার একটা দারুণ সুযোগ। সঙ্গে ইউরোপীয় গণমাধ্যমে মনোযোগের কেন্দ্রে চলে আসার সম্ভাবনাও বেশ। এই দিক বিবেচনায় রাখলে চেলসির রোনালদোকে দলে ভেড়ানোর সম্ভাবনাটা একেবারে উড়িয়েও দেওয়া যাচ্ছে না।

তবে এটা হলে রোনালদো যে তার বর্তমান দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সমর্থকদের চক্ষুশূল হবেন, তা বলাই বাহুল্য। গেল বছর যখন তার ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেওয়ার গুঞ্জন চলছে, তখনই তার জার্সি পোড়ানো শুরু হয়েছিল ম্যানচেস্টারের রাস্তায়। সেখানে তিনি যখন সরাসরি ইউনাইটেড থেকে চেলসিতে যোগ দেবেন, তখন যে রীতিমতো শত্রুই বনে যাবেন তিনি, তা বলাই বাহুল্য।

এদিকে রোনালদোর দল ছাড়ার অভিপ্রায় জানিয়ে দেওয়ার ঠিক পর থেকেই তার দলবদলের চেষ্টায় নেমে পড়েছেন ‘সুপার এজেন্ট’ মেন্দেস। ইতোমধ্যেই রোনালদোকে প্রস্তাব তুলে ধরেছেন বায়ার্ন মিউনিখ, ন্যাপোলি আর পিএসজির কাছেও। ফলে চেলসি এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেও বিকল্প খোলা থাকছে রোনালদোর কাছে।

x