September 27, 2022

মেসি-ডি মারিয়ার শহরে কোচ হয়ে ফিরলেন তেভেজ

মধ্য আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় শহর রোজারিও। তবে শহরটার বিশেষত্ব তার আয়তন দিয়ে মাপা হয় না আর্জেন্টিনায়। যে শহরটা লিওনেল মেসির জন্মস্থান, আর্জেন্টিনার আরেক নায়ক আনহেল ডি মারিয়ারও, সেই শহরের বিশালতাকে কেন তার আয়তন দিয়ে মাপা হবে আর্জেন্টিনায়? আর্জেন্টাইন বিপ্লবী এর্নেস্তো চে গেভারার জন্মও এই শহরেই। 

Thank you for reading this p

ost, don't forget to subscribe!

 

 

 

আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি কার্লোস তেভেজের জন্ম অবশ্য এখানে নয়। তবে নিয়তি তাকে টেনে এনেছে মেসি, ডি মারিয়া, চে গেভারাদের শহরে, এখানেই পুনর্জন্ম হচ্ছে তার ফুটবল ক্যারিয়ারের। এই শহরেরই দল, রোজারিও সেন্ত্রালের কোচ হয়ে আবারও ফুটবলে ফিরেছেন তিনি।

গুঞ্জনটা চলছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস জানাচ্ছিল, ক্লাব কর্তাদের চাওয়াতে আর্জেন্টাইন প্রিমেরা দিভিসিওনের দল রোজারিও সেন্ত্রালে যোগ দিচ্ছেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার এসেছে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। এক বিবৃতিতে ক্লাবটি জানায়, সাবেক ম্যানচেস্টার সিটি স্ট্রাইকার কোচ হয়ে আসছেন ক্লাবটিতে।

গত ৪ জুন ৩৮ বছর বয়সে ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছিলেন তেভেজ।জাতীয় দলের ক্যারিয়ারটা খুব সমৃদ্ধ না হলেও ক্লাব ফুটবলে তার নামডাক ছিল বেশ। ৭৪৮ ম্যাচ খেলে তিনি করেছেন ৩০৯ গোল। যার শেষটা তিনি খেলেছেন বোকা জুনিয়র্সে। গেল বছর বোকায় সবশেষ ম্যাচটা খেলেছিলেন তিনি। এরপর চলতি মাসের শুরুতে দেন অবসরের ঘোষণা।

এরপর ঠিকঠাক এক মাসও কাটেনি, তেভেজ যোগ দিলেন রোজারিও সেন্ত্রালে। ক্লাবটিতে ১২ মাসের চুক্তি পেয়েছেন তিনি। মেসি-ডি মারিয়ার শহরের এই ক্লাবটি সপ্তাহখানেক আগে বিপদেই পড়ে গিয়েছিল। কোচ লেয়ান্দ্রো সোমোজা হুট করেই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত জানিয়েছিলেন ক্লাবটির কর্তাদের। এরপর থেকেই গুঞ্জন ছিল তেভেজের কোচ হয়ে আসার, শেষমেশ তিনিই এলেন দলটির কোচ হয়ে।

গতকাল মঙ্গলবার তেভেজকে নতুন কোচ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয় রোজারিও। তার কোচ হয়ে আসাতে বড় আশাও তৈরি হয়েছে ক্লাবটিকে ঘিরে। তিনি বলেন, ‘খেলোয়াড় হিসেবে আমি সবসময়ই আমার ক্লাবগুলোকে কিছু না কিছু দিতে পেরেছি আমি। কিন্তু আজ পরিস্থিতিটা খানিকটা ভিন্ন, আমি এখন অন্য পাশে, আর সত্যিটা হচ্ছে আমি বেশ চমকে গিয়েছি, কারণ অনেক প্রত্যাশা তৈরি হয়েছে। তবে আমি শান্ত থাকছি, কারণ আমাদের অনেক বেশি পরিশ্রম করতে হবে।’

তেভেজ জানালেন, তার হাতে অনেক প্রস্তাব ছিল। তার মধ্য থেকেই রোজারিওকে বেছে নিয়েছেন তিনি। বললেন, ‘আমি আমার প্রথম চ্যালেঞ্জটা রোজারিও সেন্ত্রালেই নিচ্ছি এখানকার মানুষের জন্য। অনেক ক্লাবের প্রস্তাব ছিল আমার কাছে, কিন্তু রোজারিওর মধ্যে সেই ব্যাপারটা আছে। যদি আমরা ঠিকঠাক কাজ করি, তাহলে অনেক শোরগোল ফেলে দিতে পারব, অনেক ইতিহাস গড়তে পারব।’

এখানে তেভেজের কাজটা অবশ্য সহজ নয়। প্রিমেরা দিভিসিওনের চলতি মৌসুমটা ভালোভাবে শুরু হয়নি দলটির। চার ম্যাচ থেকে অর্জন মাত্র চার পয়েন্ট, সেই দলকে কক্ষপথে ফেরানোর দায়িত্বটাই বর্তেছে তেভেজের কাঁধে। আগামী ২৪ জুন হিমনাসিয়া লা প্লাতার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ডাগআউটে অভিষেক হবে আর্জেন্টাইন এই সাবেকের

x

x